শিরোনাম:
●   লালমোহনে আমেজ-শঙ্কার ইউপি নির্বাচন।।লালমোহন বিডিনিউজ ●   লালমোহনে ইউপি নির্বাচনের প্রার্থীদের সাথে পুলিশের মতবিনিময় ●   লালমোহন পৌর মেয়রের হোয়াটসঅ্যাপ হ্যাক করে টাকা দাবি।।লালমোহন বিডিনিউজ ●   লালমোহনে সরকারি গাছ কর্তনের অভিযোগ || লালমোহন বিডিনিউজ ●   দ্বাদশ জাতীয় সংসদের পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত।।লালমোহন বিডিনিউজ ●   লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে গণসংযোগে ব্যস্ত চেয়ারম্যান প্রার্থী।।লালমোহন বিডিনিউজ ●   লালমোহনে পাঁচ অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হসপিটাল সিলগালা।।লালমোহন বিডিনিউজ ●   লালমোহনে এক কেজি গাঁজা সহ আটক ১।।লালমোহন বিডিনিউজ ●   স্ট্যান্ড নেই, সড়ক ইজারা দিচ্ছে লালমোহন পৌরসভা!।। লালমোহন বিডিনিউজ ●   এমবিবিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ায় লালমোহনে শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা।।লালমোহন বিডিনিউজ
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

Lalmohan BD News
সোমবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৪
প্রথম পাতা » অপরাধ | জেলার খবর | বরিশাল | বিভাগের খবর | লালমোহন | শিরোনাম | সর্বশেষ » লালমোহনে বিরোধে জেরে বাড়ির সীমানা ভাংচুরের অভিযোগ || লালমোহন বিডিনিউজ
প্রথম পাতা » অপরাধ | জেলার খবর | বরিশাল | বিভাগের খবর | লালমোহন | শিরোনাম | সর্বশেষ » লালমোহনে বিরোধে জেরে বাড়ির সীমানা ভাংচুরের অভিযোগ || লালমোহন বিডিনিউজ
৯২ বার পঠিত
সোমবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৪
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

লালমোহনে বিরোধে জেরে বাড়ির সীমানা ভাংচুরের অভিযোগ || লালমোহন বিডিনিউজ

---লালমোহন ভোলা প্রতিনিধি : ভোলার লালমোহনে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বসতবাড়ির সীমানা ও শৌচাগার ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে।
সোমবার ভোরে উপজেলার রমাগঞ্জ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড রমাগঞ্জ গ্রামের মজর আলী হাজি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
বসতবাড়ির সীমানা ও শৌচাগার ভাংচুরের অভিযোগ করে বাড়ির মালিক মো: ফিরোজ মিয়া বলেন, রমাগঞ্জ মৌজায় পিতৃ ও খরিদা জায়গায় বসতঘর করে দীর্ঘ প্রায় ৩৫ বছর ধরে পরিবারসহ বসবাস করছেন তিনি। এদিকে ২০১৩ সালে রমাগঞ্জ মৌজার জেএল-৩১, খতিয়ান ৪৪৯এর ৭৭৩,৭৭৮সহ ২৫টি দাগে আমাদের কয়েকজন স্বজনের কাছ জমি ক্রয় করেন একই বাড়ির মৃত আবদুল আলীর ছেলে মোঃ নাছির। এরপর থেকে আমার বসতবাড়ির মধ্যে জায়গা দাবি করে আসছে নছির এবং একাধিকবার আমার বাড়িঘরে হামলা চালিয়েছিলো সে।
ফিরোজ মিয়া আরও বলেন, শুধু তাই নয়, আমাদের বিরুদ্ধে আদালতে ও থানায় মামলা দিয়েও হয়রাণি করেছে নাছির। গত দুই-আড়াই মাস উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জাকির হোসেন পঞ্চায়েত, রমাগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সেলিম মিয়াসহ স্থানীয় শালিসগণ উভয়পক্ষের মধ্যে মিমাংসা করে জায়গা বুঝিয়ে দেন। এরপর নিজের জায়গায় প্লাস্টিকের জাল দিয়ে বাউন্ডারি তৈরি করি। আজ (সোমবার) ভোরে আমার ওই বাউন্ডারি ভেঙে প্লাস্টিকের জাল আগুনে পুড়িয়ে ফেলে নাছির। একইসাথে আমার বাড়িতে ঢুকে শৌচাগার ভেঙে ফেলে সে।ওই ভাঙচুরের বিডিও ধারণ করে সংবাদকর্মীদের কাছে দিয়ে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন ফিরোজ মিয়া।
এ বিষয়ে জানতে মো: নাছিরের মুঠোফোনে কল দিলে তিনি জানান, ভাঙচুরের ওই ভিডিও দুই-আড়াই মাস আগের। আজ (সোমবার) কোনো ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেনি।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)